Brands

Sort By:
View:
  • বিজয় শংকর বর্মন
    আমার আঙুলগুলির অঙ্কুরোদগম 

    বিজয় শংকর বর্মনের জন্ম ১৯৮০ সালে, অসমের নলবাড়ি জেলার রূপীয়াবাথান গ্রামে। বিজয় শংকর কবি, অনুবাদক এবং লোকসংস্কৃতির গবেষক। বিভিন্ন বিষয়ে তাঁর মোট দশটি গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। এই বইয়ের কবিতাগুলি তাঁর তিনটি কাব্যগ্রন্থ ‘দেও’, ‘অশোকাষ্টমী’ এবং ‘বর্ণমুক্তি’ থেকে নির্বাচিত। প্রত্যেক ভাষারই এক স্বকীয় সৌন্দর্য রয়েছে, ভিন্ন কোন ভাষায় তার রূপান্তর সহজ নয়। এই বইয়ের জন্য রূপান্তরের এই দুরূহ কাজটি করেছেন সঞ্জয় চক্রবর্তী, তিনি এই বইয়ের কবিতাগুলি নির্বাচনও করেছেন। বিজয় শংকরের কবিতা ভারতের প্রায় সমস্ত ভাষায় এবং কয়েকটি বিদেশি ভাষায় অনূদিত হয়েছে, বাংলা ভাষায় অবশ্য তাঁর কবিতা অনূদিত হল এই প্রথম।

    প্রথম সংস্করণ, ৬৪ পৃষ্ঠা

     120.00
  • স্বর্ণেন্দু সেনগুপ্ত সম্পাদিত
    গুয়ান্তানামো : স্মৃতিকথা সাক্ষাৎকার কবিতা ছবি

    যে-কারাগারে বসে লেখা এই বইয়ে সংকলিত কবিতাগুলি, আঁকা এ বইয়ে ছাপা ছবিগুলি, যে-জেলখানাকে নিয়ে এই লেখা এই বইয়ের অন্তর্গত স্মৃতিকথা ও ডায়েরির সমূহ বয়ান, যাকে কেন্দ্র করে নেওয়া এ বইয়ের দুটি সাক্ষাৎকার— তার নাম গুয়ান্তানামো। কুখ্যাত এই সামরিক কারাগার কিউবা বা কুবা-র একটি দ্বীপ জোর করে দখলে রেখে বানিয়েছে দুনিয়ার সবচেয়ে বড় সন্ত্রাসবাদী রাষ্ট্র আমেরিকা।
    যাঁরা খবরের কাগজ পড়েন, তাঁরা হয়তো পড়েছেন, শুনেছেন এই কারাগারের কথা। গুয়ান্তানামো কারাগারের কথা খবরের কাগজে শিরোনামে আসে তার ভয়ংকর, অত্যাচারী ব্যবস্থার কারণে। এই বই নির্দোষ নিরীহদের বিরুদ্ধে সেই অত্যাচার ও সন্ত্রাসের কথা নানা ভাবে বলে কবিতায়, গদ্যে, ছবিতে।

    ১ম সংস্করণ, ১২০ পৃষ্ঠা

     160.00
  • ফালগুনী রায়
    আমার রাইফেল আমার বাইবেল

    হাংরি প্রজন্মের কবি-লেখকদের মধ্যে ফালগুনী লেখার গুণে যেমন, তেমনই জীবনযাপনের কারণেও কিংবদন্তি। মাত্র ছত্রিশ বছর বেঁচেছিলেন ফালগুনী, তার মধ্যেই এমন অমোঘ সব লেখা তিনি লিখেছিলেন, যার আবেদন বছর-চল্লিশেক পরেও এতটুকু কমেনি। শুধু কবিতা নয়, নানা সময়ে গদ্য, নাটক, চিত্রনাট্য ইত্যাদিও তিনি লিখেছিলেন, এবং তা একই রকম জোরালো।

    ফালগুনীর প্রায় যাবতীয় লেখাপত্র নিয়ে এই সংকলন। চেষ্টা করা হয়েছে তাঁর সমস্ত লেখাই সাল-তারিখ অনুযায়ী সাজাতে, এবং প্রত্যেক রচনার শেষে তার উল্লেখ আছে।

    বাংলা সাহিত্যের পাঠকের অবশ্যপাঠ্য এই বই।

    প্রথম বইপত্তর সংস্করণ, ১১২ পৃষ্ঠা

     160.00
  • আরণ্যক টিটো
    ফুলেরা পোশাক পরে না

    ‘লেখা’ শব্দটি ক্রিয়া। ক্রিয়া ব্যতীত কোন মানুষ নেই, এমনকী প্রকৃতিজগতে অন্যান্য প্রাণীও। এই ব্রহ্মাণ্ড ক্রিয়াশীল… সচলতা ছাড়া জীবন চলে না! আর এই লেখালিখি, ক্রিয়া, বিষয়টার সাথে, মনের মাজারে নড়নচড়নমনা বাউলটার (নন্দনতাত্ত্বিক) মরমযাতনা আছে! যার মর্মে কানাকানি জানাজানি করে জীবনপ্রকৃতি, তার কাঙ্ক্ষা— প্রাপ্তি ও হতাশার দ্বান্দ্বিক মিথষ্ক্রিয়ায় যে রসটুকু বের হয়ে আসে তারই সার এই লেখা! এই লেখালেখি ‘আড়াই অক্ষরে’ বলা যেতে পারে নিজেকে/প্রকৃতিকে বিনির্মাণ কিংবা প্রকাশ…

    আর এই প্রকাশতত্ত্বের পথে (দীর্ঘ ২৪ বৎসরের বাক্যচর্চার সারমর্ম) ‘ফুলেরা পোশাক পরে না’ প্রথম পদক্ষেপ… যেখানে ১৭৮টি কবিতায় (পুরুষবাদিতা কিংবা নারীবাদিতার বিপরীতে) ধরতে চাওয়া হয়েছে এমন এক (নন্দনতাত্ত্বিক) অভিসন্দর্শন— মর্মটুকু এই: শিল্প হলো অর্ধনারীশ্বর যাহার অর্ধেক শিব, অর্ধেক পার্বতী…

    এই বইদেশে ভুমিকা না শুনে ভিতরে ঢোকেন… এটুকু কেবলি ইঙ্গিত, এর পাতায় পাতায় ভাঁজে ভাঁজে লুক্কায়িত মর্মকে জানতে পাঠ করুন, নক্‌শিকথায় বোনা সুতোর কাহন… উদ্‌যাপনের কথামালা… বাংলাসাহিত্যের অর্ধনারীশ্বরকাণ্ড… বিশ্বদৃষ্টির পরম্পরা… ব্যক্তিস্বাতন্ত্র্যতাবাদী এককের বিপরীতে সমগ্রতার যুক্তাঞ্চল!… যার রচয়িতা মারা গেছে সৃজন বর্ষায়, খুঁজেও পাবেন না তাহাকে জলের বাসরে…

     295.00
  • আব্বাস কিয়ারোস্তামি-র কথা-ছবি-কবিতা
    চেরির স্বাদ
    সংকলন ও ভাষান্তর : সন্দীপন ভট্টাচার্য

    জাঁ-লুক গোদার তাঁকে মেনেছেন একার্থে ‘ধ্রুপদী চলচ্চিত্রের শেষ নির্মাতা’ বলে। অথচ খুব ভেবেচিন্তে, পরিকল্পিত পথে এ জগতে আসা হয়নি তাঁর। বাল্যে কম-কথা-বলা মুখচোরা বালকটি—প্রাতিষ্ঠানিক পেন্টিং ও গ্রাফিক শিক্ষা; শখের ছবি তোলা ও কবিতা লেখা; পেশাগত ডিজাইন ও বিজ্ঞাপন নির্মাণ—এই সব পরিচয় ছাপিয়ে একসময় বিশ্ব-চলচ্চিত্রের মহারথীদের একজন।
    সম্প্রতি (৪ জুলাই ২০১৬) না-ফেরার দেশে চলে গেছেন মহান এই ইরানি চিত্ররূপকার। অসংখ্য জাতীয়-আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি-সম্মানে সিক্ত এই নির্মাতা—নিজেকে নিয়ে; তাঁর ছবি ও কবিতা নিয়ে; তাঁর হয়ে ওঠার সময় ও সমাজকে নিয়ে কথা বলেছেন নানা জনের সাথে নানা সময়ে নানা স্থানে। সে সব কথামালা একত্র করে, তাঁরই ছবি ও কবিতায় গেঁথে দিয়েছেন সন্দীপন ভট্টাচার্য।
    ‘চেরির স্বাদ’ গ্রন্থটি এক বর্ণিল, রূপবান কিয়ারোস্তামি-কে একেবারে ভিতর থেকে জানা-বোঝার সুযোগ করে দেবে আমাদের।

     340.00
  • মানিক দাস
    সোঅনশিরি আর জোনবেলি : অসমের মিসিং জনগোষ্ঠীর মৌখিক কবিতা

    মিসিং অসমের একটি প্রধান উপজাতি। মিসিংদের নিজস্ব লিপি নেই, কিন্তু তা না থাকলেও তাঁদের আছে এক সমৃদ্ধ মৌখিক ভাষা। আছে সাহিত্য : গান, কবিতা ও লোককথা। জীবন নরহ মিসিংদের কবিতা প্রথম সংকলন করেন, তিনি নিজে ঐ জনজাতির লোক। এ বইয়ে আছে শতাধিক মৌখিক কবিতা, বাংলায় যা প্রথম অনূদিত হল। মিসিংদের সার্বিক পরিচয়-সহ ভাষান্তর : মানিক দাস।

     60.00
  • রঞ্জিত সিংহ
    আমিই তোর বৈখরী, আমি তোর বৈঠা

    পঞ্চাশের এই কবির অন্তর্যাত্রা মূলত মনোগহীনের এমন এক অঞ্চলে, যেখানে নিয়তি তার যাবতীয় আয়ুধ শানিয়ে রাখে সর্বক্ষণ। ধ্রুপদী ট্র্যাজেডির আঙ্গিকে ঘটে চলে এমন সব ঘটনা, যার ওপর নিয়ন্ত্রণ থাকে না কখনওই। বাস্তব আর পরা-বাস্তব অঙ্গাঙ্গী হয়ে থাকে তাঁর কবিতায়। ঋজু পঙ্‌ক্তির সারি পাঠকের সামনে উন্মোচিত করে এমন এক ভুবন, যেখানে আলো মানে অন্ধকারেরই আর-এক পরত। থমকে থাকা নেমিসিস-এর চৌকাঠে খেলে যায় জাগরণ আর সুষুপ্তির অনুপম লুকোচুরি, শেষ পর্যন্ত যা উদ্ভাসিত হয় এক শর্তহীন কাব্যনন্দনে। কবির সাম্প্রতিকতম কবিতার সংকলন এই বই।

     60.00
  • প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়
    উপাদানকারণ

    কবিতায় ছড়ানো রয়েছে এমন এক মানচিত্রের টুকরো, যাকে জিগস-স ধাঁধার কেতায় জোড়া লাগানোর দায় পাঠকের। যদি সত্যি জোড়া লাগে সেই টুকরো, তবে উঠে আসবে এমন একটা দেশ, যার সঙ্গে পাঠকের পরিচয় অতি নিবিড়। কখনও সে দেশটার নাম ‘উত্তর কলকাতা’, কখনও বা তার নাম ‘মনোগহীন’। আনন্দভিখিরি আত্মন সেখানে গুপ্ত দাম্পত্যের পাঠ সেরে খোঁজ করে দোলের দিনের দুপুরে মাতালের প্রলাপবাক্যের মধ্যে লুকিয়ে থাকা আপ্তকথার। আর তারই সূত্র ধরে তার সামনে এসে দাঁড়িয়ে পড়ে মধ্যরাতে জ্বালা জুড়নোর অভিপ্রায়ে বালতি-বালতি জল ঢালার ভূতুড়ে শব্দ। এরা হয়তো একটি বিশেষ মানচিত্রেরই দুটি খণ্ডাণু, যাদের সন্ধান জানেন সত্তর দশকের এই বিশিষ্ট কবি। এই নতুন কাব্যগ্রন্থে প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন সেই জিগস-স ধাঁধার সন্ধান। হয়তো সন্ধানও বলা যায় না পুরোপুরি, সেটা কূটাভাসও হতে পারে। কারণে-উপাদানে আর উপাদানে-কারণে গড়া এই ভব-জগৎ যে শেষ পর্যন্ত কবিতাই, সেই কথাটাই পাঠকের কানে-কানে বলে যায় এই বইয়ের প্রতিটি শব্দ, এমনকী ছেদ আর যতিচিহ্নও।

     60.00
  • বিপুল চক্রবর্তী
    জল পড়ি পাতা পড়ি 

    গায়ক হিসেবে বিপুল চক্রবর্তী সমধিক পরিচিত হলেও আসলে তিনি কবি। বস্তুত কবিতার হাত ধরেই তাঁর গানের জগতে প্রবেশ, এবং কবিতাকে তিনি ছেড়ে যাননি কখনও। আসলে তাঁর কবিতাই হয়ে ওঠে গান। কবির সাম্প্রতিকতম কবিতার বই।

     70.00
  • স্বর্ণেন্দু সেনগুপ্ত
    পিতার জন্ম হয়

    স্বর্ণেন্দু সেনগুপ্তর কবিতা লেখা আরম্ভ নতুন শতকের শুরুর দশকে। বর্তমান সময়ের খণ্ডবৈচিত্র্যের ভিতরে তাঁর রচনাকে চেনা যায় ভিন্নতর প্রতিভায়, যাকে বলা যায় বি- কল্পনার রঙ, বলা যেতে পারে শ্বেতাভ প্রত্যয়। রূপকথা হয়ে ওঠা এসব লেখালেখি অমীমাংসিত প্রশ্নের মতো শূন্যতায় ফিরে যেতে চায়, সামান্যকে জানার ইচ্ছে নিয়ে তারা আবার ফিরে আসতে চায় কথার অভ্যন্তরে। যাতায়াতের এই রাস্তা যেন ছোট-ছোট কাগজের কুঁচি দিয়ে গড়ে দেন স্বর্ণেন্দু।

     70.00
  • বিশ্বদেব মুখোপাধ্যায়
    আর্যায় বঙ্গরস

    কখনও কবিতা মাটির বাড়িটির ছনে ছাওয়া দাওয়ায় জিরোতে বসে, কখনও সে হেঁটে যায় পূর্ণচন্দ্রের আভা মেখে এক অনির্দেশ্য অস্তিত্বের দিকে। মুঠোর মধ্যে জারিত হতে থাকে আবহমান। বাংলা কবিতার পাঠ-অভিজ্ঞতায় সংযোজিত হয় এক একান্ত নিরালা অধ্যায়, যেখানে প্রেমের অর্থ কোমলতা, সংরাগের অর্থ শান্তি। বাস্তুভিটের সামনে এসে দাঁড়ায় উচ্ছিন্ন সময়। বিশ্রাম নেয় দু’-দণ্ড। কবিতার পাতায় ভেসে ওঠে জল-বাতাসার চিরনবীন স্বাদ। কবির সাম্প্রতিকতম কবিতার সংকলন এই বই।

     60.00
  • গৌতম চৌধুরী
    উজানি কবিতা

    নিজেকে কখনওই পুনরাবৃত্ত হতে দেননি সত্তরের এই বিশিষ্ট কবি। বাংলা ভাষার দৈনন্দিনকে অনায়াসে অতিক্রম করে তিনি পৌঁছতে জানেন এমন নিভৃতিতে, যেখানে প্রতিটি মুহূর্ত বহন করে ‘চিরকালে’র আস্বাদ। কুশলী হাতে উঠে আসে অভ্রান্ত ছন্দের জাফরিসৌন্দর্য, পাঠকের মণিকোঠায় জমা হতে থাকে অনুভবের বাইরের অনুভূতির সোনারুপো। বাহ্যত মিস্টিক, অন্তরে চিরপরিচয়ের অভিজ্ঞান বহন করে কবিতা। ঋদ্ধির অর্থ বদলে যায় পাঠ থেকে পাঠান্তরে।

     60.00
  • সুব্রত সরকার
    না স্নেহকরস্পর্শ 

    সত্তরের এই অশ্বারোহী সর্বদা বিশ্বস্ত থেকেছেন স্বাতন্ত্র্যের কাছে। মহাজগৎকথাকে ধরতে চয়েছেন জাতীয় সড়কের প্রান্তবর্তী ধাবা-র তন্দুর-সঞ্জাত উষ্ণতার অক্ষরে। কখনও তা হয়ে উঠেছে কথামৃতের ভিন্নমাত্রিক চলচ্ছবি, কখনও তার রঙ কৃষ্ণ-গহ্বরের প্রবেশবৃত্তকে ঘিরে-থাকা আভাটির মতো। চেতন-অচেতন-অবচেতনের তরঙ্গক্রম তাঁর কবিতায় কোন ব্যাকরণ মেনে উপস্থিত হয় না। অতিসৌম্যের কাঁধে অনায়াসে হাত রাখে অতিরুদ্র। চেনা পরিপার্শ্ব লহমায় বদলে যায় সম্পূর্ণ অপরিচয়ের কুয়াশাবর্ণে। কবির সাম্প্রতিকতম কবিতার সংকলন এই বই।

     60.00
  • Out Of Stock

    অনির্বাণ মুখোপাধ্যায়
    সোনাবন্দনামা

    নব্বই দশকের এই কবি বিশ্বাস রাখেন পরমের সর্বময় রূপটিতে। চরাচর ব্যেপে ফুঠে থাকা বাসনাকুসুম কোন রসায়নে রূপ পায় নৈবেদ্যে, তার হদিশ পেতে কবিতা যাত্রা করে সময়হীন এক পরিসরে। বাংলার একান্ত সুফিভাবনাকে আশ্রয় করে রচিত হয়েছে এই চতুর্দশীমালা, যেখানে শাহ জালালের জিকিরে এসে মেশে মহাপ্রভুর সংকীর্তনধ্বনি, হূদিবৃন্দাবনের কুঞ্জে গুঞ্জরিত হয় দেল-কেতাবের নিভৃত আখর।

     40.00
  • মূল-সহ বাংলায় ভাষান্তরিত অসমিয়া বিহু গীতের সংগ্রহ
    মোষের শিঙের শিঙাটি
    সংগ্রহ সম্পাদনা ভূমিকা ভাষান্তর : মানিক দাস

    বিহু গান কে না শুনেছেন! আর একবার শুনলে তা ভালো না-লেগে কি উপায় আছে? কিন্তু যাঁরা অসমিয়া জানেন না, শুধু ভাষাগত অপরিচয়ের কারণে তার মর্ম অনুধাবনে তাঁদের ঘাটতি থেকে যায়। অসম-বাসী লেখক সংগ্রহ করেছেন, বাংলায় তার যোগ্য রূপান্তর ঘটিয়েছেন এবং চমৎকার একটি ভূমিকায় বিহু-র সামাজিক তাৎপর্য ও সার্বিক পরিচয় বিশদ করেছেন এই বইয়ে। সর্বার্থেই সংগ্রহযোগ্য।

     80.00
  • Out Of Stock

    সন্দীপন ভট্টাচার্য
    মায়া-পুথি

    কবিতা নয়, হয়তো কবিতার টুকরো। সন্দীপনের নিজের লেখা কিছু, আর কিছু লিওনার্ড কোহেন-এর।

     50.00