Brands

Sort By:
View:
  • শুভেন্দু দাশগুপ্ত
    তখন যেমন এখন তেমন : বাংলা কার্টুনে সময়ের ছবি

    এ দেশের সামাজিক-রাজনৈতিক দুরবস্থা পঞ্চাশ-একশো বছর আগে যেমন ছিল, এখনও মনে হয় রয়ে গেছে তেমনই, পালটায়নি কিছু। বাংলার সংবাদপত্র আর সাময়িকপত্রে প্রকাশিত কার্টুন বা ব্যঙ্গচিত্র নিয়ে গবেষণার সূত্রে এই অপ্রিয় সত্য প্রায় নতুন করে উপলব্ধি করেছেন লেখক।

    গগনেন্দ্রনাথ, চিত্তপ্রসাদ, সোমনাথ হোর, পরিতোষ সেন, রেবতীভূষণ, অমল চক্রবর্তী, সুফি, কাফী খাঁ, চণ্ডী লাহিড়ী, কুট্টি প্রমুখের মূল কার্টুনের প্রতিলিপি-সহ এই বইয়ে রয়েছে প্রাসঙ্গিক তথ্য আর টীকাভাষ্য।

    এ বই কার্টুনের সূত্রে একটা কালপর্বের বাংলার সামাজিক-রাজনৈতিক ইতিহাসও।

    122 পৃষ্ঠা, 5.17 এমবি

     60.00
  • দীপেন্দু চক্রবর্তী
    সিনেমা নিয়ে কথা 

    সিনেমা নিয়ে নানান পত্রিকায় কয়েক দশক ধরে লিখছেন দীপেন্দু চক্রবর্তী, বলা যায় এই প্রথম তা একত্র হল। ফলে পাঠক যেমন সিনেমা নিয়ে লেখকের ভাবনার ব্যাপ্তি ও গভীরতার সন্ধান পাবেন এখানে, তেমনই যেহেতু দীপেন্দু লিখেছেন মূলত বাংলা সিনেমা নিয়ে, তাই গত কয়েক দশকের বাংলা সিনেমার একটা ক্রম-ইতিহাসও পেয়ে যাবেন এই সূত্রে। কেউ-কেউ হয়তো লেখকের মতে আস্থা রাখবেন, আবার কেউ-কেউ, আশা করা যাক যে হয়তো প্ররোচিত হবেন তুমুল তর্কে। বলা থাক, পাঠকের সঙ্গে এহেন মত-বিনিময়ে লেখকের অরুচি নেই। সহমত-ই হোন বা প্ররোচিত হোন তর্কে, একটা কথা ঠিক যে এ সমস্ত লেখা পড়তে শুরু করলে শেষ না করে তৃপ্তি নেই।

    প্রথম সংস্করণ, ১৬৫ পৃষ্ঠা

     210.00
  • স্বর্ণেন্দু সেনগুপ্ত সম্পাদিত
    গুয়ান্তানামো : স্মৃতিকথা সাক্ষাৎকার কবিতা ছবি

    যে-কারাগারে বসে লেখা এই বইয়ে সংকলিত কবিতাগুলি, আঁকা এ বইয়ে ছাপা ছবিগুলি, যে-জেলখানাকে নিয়ে এই লেখা এই বইয়ের অন্তর্গত স্মৃতিকথা ও ডায়েরির সমূহ বয়ান, যাকে কেন্দ্র করে নেওয়া এ বইয়ের দুটি সাক্ষাৎকার— তার নাম গুয়ান্তানামো। কুখ্যাত এই সামরিক কারাগার কিউবা বা কুবা-র একটি দ্বীপ জোর করে দখলে রেখে বানিয়েছে দুনিয়ার সবচেয়ে বড় সন্ত্রাসবাদী রাষ্ট্র আমেরিকা।
    যাঁরা খবরের কাগজ পড়েন, তাঁরা হয়তো পড়েছেন, শুনেছেন এই কারাগারের কথা। গুয়ান্তানামো কারাগারের কথা খবরের কাগজে শিরোনামে আসে তার ভয়ংকর, অত্যাচারী ব্যবস্থার কারণে। এই বই নির্দোষ নিরীহদের বিরুদ্ধে সেই অত্যাচার ও সন্ত্রাসের কথা নানা ভাবে বলে কবিতায়, গদ্যে, ছবিতে।

    ১ম সংস্করণ, ১২০ পৃষ্ঠা

     160.00
  • শুভেন্দু দাশগুপ্তের গ্রন্থনা
    বাংলা কার্টুনে ভোট

    ভোট গম্ভীর ব্যাপার। ভোট মজার ব্যাপার। ঠাট্টা-তামাশারও ব্যাপার। ভোটের বিষয় নিয়ে ব্যঙ্গ। কথায়, প্রতি দিনের প্রতি জনের কথায়। আঁকায়, ব্যঙ্গচিত্রীদের আঁকায়। সেই কবে থেকে ভোট নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র। যবে থেকে ব্যঙ্গচিত্র ছাপা হচ্ছে বাংলা পত্রিকায়। ১৮৭৪ সাল, প্রথম ‘বসন্তক’ পত্রিকায়। ভোট নিয়ে, ভোটের বিষয় নিয়ে সাধারণ লোকের ঠাট্টা মশকরা তামাশা বিদ্রূপ ব্যঙ্গচিত্রীর আঁকায়, কথায়। হালকা চালে, সমালোচনায়। যেমন হয় কার্টুনে। বাইরে থেকে দেখলে এক রকম, ভিতরে ঢুকলে আর এক রকম, অন্য রকম। প্রায় ৫২টি এমন ভোটের কার্টুন নিয়ে তৈরি এই বই, সঙ্গে প্রয়োজনীয় তথ্যবিবরণী।

     90.00
  • নোয়াম চমস্কি
    ভাবনার আগল ভাঙো
    নির্বাচিত সতেরোটি সাক্ষাৎকার

    “আপনার সামনে মূলত দুটো বিকল্প পথ খোলা রয়েছে। একটা হল, সবচেয়ে খারাপটা ধরে নেওয়া, তখন আপনি নিশ্চিত জানেন যে তা-ই ঘটবে। আর-একটা হল, ধরে নেওয়া যে পরিবর্তনের আশা রয়েছে। তা হলে এ-ও সম্ভব যে আপনি যা করছেন, তার মাধ্যমে পরিবর্তনের পক্ষে আপনি কিছুটা সাহায্য করতে পারবেন। অর্থাৎ আপনার কাছে দুটো বিকল্প পথের একটায় নিশ্চিত যে সবচেয়ে খারাপটাই ঘটবে, আর-একটা এই সম্ভাবনা খোলা রাখে যে অবস্থাটা ভালো হবে। এ অবস্থায় যুক্তিবাদী লোক দ্বিধায় পড়ে না।… প্রত্যেকেরই এমন কিছু-না-কিছু বিকল্প থাকে। আপনি তখন নিজেকেই জিজ্ঞাসা করেন, আমি কি সে সব কোন কাজে লাগাব না। কোন্‌টা হলে নিশ্চিত করে বলা যায় যে দুঃখকষ্ট চলতেই থাকবে, নিপীড়ন চলতেই থাকবে, বিভেদ চলবে, হয়ে উঠবে আরও খারাপ? নাকি, তার বিরুদ্ধে যেটুকু বিকল্প আমার সামনে আছে, আমি তা ব্যবহার করব, পরিবর্তনের পক্ষে অন্যদের সঙ্গে কাজ করার চেষ্টা করব? সে ক্ষেত্রে ভালো কিছু তো হতেও পারে।” এই বইয়ে সংকলিত এক সাক্ষাৎকারে চমস্কি বলেছেন এ কথা।

    ইতিহাসে দেখা যায় পরিবর্তনের প্রয়োজন কখনও ফুরোয় না। আজ যাকে মনে হয় সর্বরোগহর বটিকা, দু-দিন যেতে-না-যেতেই তার স্বরূপ প্রকাশিত হয়ে পড়ে। অগত্যা নতুন করে সংগঠিত হওয়ার প্রয়োজনও দেখা দেয়। পুনরাবৃত্ত এই সব সময়ে এই বইয়ে সংকলিত সাক্ষাৎকারের বয়ানসমূহ আমাদের পথ দেখাতে পারে। সেই কারণেই এই নতুন সংকলন।

     

     220.00
  • বব মার্লে গান গাইতেন। বুক নিংড়ে গাইতেন। জামাইকায় থাকতেন তিনি, কিন্তু ফিরতে চাইতেন নিজভূমি আফ্রিকায়– তাঁর গোষ্ঠীর অন্যান্যদের মতোই। এঁরা রাস্তাফারিয়ান। রাস্তার দর্শন গুরুবাদী, ইথিওপিয়ার রাজা প্রথম হ্যেল সেলাসি-কে এঁরা মনে করেন পুনরুত্থিত খ্রিস্ট, আর সেই নিয়ে খ্রিস্টানদের সঙ্গে এঁদের প্রবল ঝগড়া। বস্তুত এ এক প্রান্তিক দর্শন, জীবনের বহু কিছু এখানে আশ্চর্য সরলতায় জড়িয়ে আছে। গান আর দর্শন এখানে একাকার, এর কোন কিছুকেই পরস্পরের থেকে ঠিক আলাদা করা যায় না। এই বইয়ে রয়েছে বিভিন্ন সময়ে নেওয়া রাস্তা গোষ্ঠীর সাঙ্গীতিক কণ্ঠস্বর বব মার্লে-র সাতটি সাক্ষাৎকারের সম্পাদিত বয়ান, আর তাঁর বেশ কয়েকটি গানের কথা– যেখানে পাওয়া যাবে তাঁর মর্মজীবনের কথা। আর তাঁর কর্মজীবনের কথা আছে সংশিষ্ট পঞ্জিতে। মার্লে-র গান যাঁরা শুনেছেন, আশা করা যায় এই বইতে তাঁরা তাঁর কণ্ঠস্বর শুনতে পাবেন।

     40.00
  • জাঁ-পল সার্ত্র
    গণহত্যা

    ভিয়েতনামে মার্কিন যুদ্ধাপরাধের বিচারে গণ-উদ্যোগে গঠিত ট্রাইবুনালের (বার্ট্রান্ড রাসেল-এর সক্রিয় উদ্যোগে হয়েছিল বলে যা রাসেল ট্রাইবুনাল নামেও সমধিক পরিচিত) দ্বিতীয় অধিবেশনে (১৯৬৭) সভ্যতার চূড়ান্ত পাপ গণহত্যা নিয়ে সার্ত্র যে-অসাধারণ ভাষণটি দিয়েছিলেন, এটি তার ভাষান্তর।

    ১.২৪ এমবি

     25.00
  • রুই জিঙ্ক
    এক সমুদ্দুর বই
    ভাষান্তর : ঋতা রায়

    ‘বই লেখে, ক্লাস নেয়, নানান জিনিশ কল্পনা করে’– এ ভাবেই রুই নিজেকে বর্ণনা করেন। জন্ম ১৯৬১ সালে, লিসবনে। ঐ শহরেরই উনিভিরসিদাদে নভা দ্য লিসবোয়া-র পর্তুগিজ বিভাগে এখন অধ্যাপনা করেন। ১৯৮৬ সালে ছোট উপন্যাস ‘অতেল লুজিতানু’ দিয়ে তাঁর লেখালেখির শুরু। অন্য স্বাদের বেশ কিছু উপন্যাস লিখলেও রুই জিঙ্ক-এর পরিচিতি মূলত হিউমারিস্ট হিসেবে। হালকা চালে বুদ্ধিদীপ্ত কৌতুকের মধ্যে দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ নানা বিষয়ে কথা বলাটাই তাঁর বৈশিষ্ট্য। ২০১০ সালে বেরোয় তাঁর ‘আনিবালেইতর’– আশ্চর্য এই বইটির ভাষান্তর করেছেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে পতুর্ণগিজ ভাষার শিক্ষিকা ঋতা রায়। এ উপন্যাস কি কিশোরদের জন্য, না প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য? বইয়ের শেষে লেখক নিজেই তার জবাবে বলছেন– বড়রা যেন এ বই ছোটদের জন্যে একটা বিবরণ বলে পড়েন, আর ছোটরা যেন এ বইকে বড়দের জন্যে লেখা একটা নভেলা হিসেবে পড়ে। আরও বলেছেন, তাতে হয়তো উপভোগ করার অনেকগুলো রাস্তা খুলে যাবে।

    ISBN: 978-93-80542-74-4
    ৮৮ পৃষ্ঠা/ ৮৭২ কেবি

     40.00
  • সৌমিত্র ঘোষ
    বনজঙ্গল ও অন্যান্য

    প্রতি নিসর্গের ইতিহাস থাকে। সে ইতিহাস একদিকে যেমন কোন এক নির্দিষ্ট ভূখণ্ডের, তার প্রকৃতি-পরিবেশের, অন্যদিকে সেই ভূখণ্ডের মানুষ না-মানুষ অধিবাসীদেরও, যারা সেই প্রকৃতি-পরিবেশের অংশ, সময়বিশেষে নির্মাতাও। নিসর্গের ইতিহাস পাঠ করতে গেলে সে কারণে স্মৃতির রহস্যগূঢ় বুনোট সরিয়ে খোঁজ চালাতে হয়। ব্যক্তির স্মৃতি, সমূহের স্মৃতি। থাকার এবং না-থাকার স্মৃতি। স্মৃতি, যা বহুবিধ ধূসর অথবা উজ্জ্বল আখ্যানে রূপান্তরিত, যা একই সঙ্গে দৃশ্য, পাঠ্য, শ্রাব্য ও কথ্য। বর্তমান আখ্যানটি নিতান্তই এক শাদামাটা আখ্যান, যা ব্যক্তি-কথকের শ্যাওলামাখা জট-পাকানো সূত্র ধরে-ধরে পৌঁছতে চাইছে একটি নির্দিষ্ট মানচিত্রবদ্ধ ভূখণ্ডের নিসর্গে, সেই নিসর্গের ইতিহাসে, সেই ইতিহাসের স্মৃতিতে। হিমালয় পাহাড়-লাগোয়া উত্তরবাংলার গ্রাম-শহর-বন-পাহাড়-নদী-মাঠ, গাছপালা-লতাগুল্ম, মানুষী না-মানুষী ছোট-বড় প্রাণী- এ সবই এই আখ্যান তৈরি করে।তৎসহ আর যা-কিছু নিসর্গের ইতিহাস কি ইতিহাসের নিসর্গের অংশ, তা-ও ঘুরে-ফিরে আসে, যথা শাদা-কালো সায়েবদের উপনিবেশ নির্মাণ, শাসন, ক্ষমতা ও আধিপত্যের বিবিধ প্রকাশ, অত্যাচার-নিষ্পেষণ-শোষণ, তার বিরুদ্ধে বিদ্রোহও।

    এই আখ্যানের কথক অর্ধ-শতকের বেশি সময়কাল ধরে ঐ নিসর্গ-ইতিহাস-স্মৃতির মধ্যে বসবাসরত, সে যা বলে তাতে ইতিহাসের গুঁড়ো আর স্মৃতির আঁশটে গন্ধ লেগে থাকে বটে, তবে খানিক এলোমেলো ভাবে। ফলে গল্প সব সময়ে উত্তরবাংলার চৌহদ্দিতে আটকে থাকে না, গঙ্গা পার হয়ে তা কলকাতা দৌড়য়, আরও এদিক-ওদিক যায়। অবশ্য যেখানেই যেদিকেই যাওয়া হোক, ফিরে আসতেই হয়। শেষত আখ্যানটি তাই চিরকেলে প্রত্যাবর্তনের, না-থাকার প্রত্নমলিন পাণ্ডুলিপি থেকে থাকাকে খুঁড়ে বার করার।

     220.00
  • মানিক দাস
    অনেক জোনাকির আলো

    দুর্গম আফগানিস্তান-পাকিস্তানের পার্বত্য এলাকায় স্কুল নেই, ছেলেমেয়েরা লেখাপড়া করতে পারে না। পর্বতাভিযানে গিয়ে পথ-হারানো গ্রেগ মর্টেনসন একক প্রয়াসে সেখানে একের পর এক স্কুল খুলেছেন। সংখ্যাটা নেহাত কম নয়, একশো একাত্তর।

    স্পেনের আন্দালুসিয়ায় ছোট্ট একটা মিউনিসিপাল শহর ম্যারিনালেডা, আসলে একটা গ্রাম। সংসদীয় ব্যবস্থার মধ্যেই নির্বাচিত মেয়র হুয়ান গোরদিলো সেখানে আটকে দিয়েছেন বিশ্বায়নের অবুঝ রথের চাকা। সব কিছুই চলে সেখানে সমবায় প্রথায়, সমস্ত সিদ্ধান্ত যৌথ।

    পাপুয়া-নিউ গিনির অন্তর্গত ছোট্ট দেশ বোগেনভিল। তামার খনি সেখানে সব কিছুই প্রায় বিষিয়ে তুলেছিল। ফ্রান্সিস ওনা-র নেতৃত্বে সাধারণ মানুষ তার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে সে-দেশে সম্ভব করে তুলেছেন এক পরিবেশ-বান্ধব বিপ্লব।

    বিকল্প ভাবনায় এই তিন সাফল্যের খতিয়ান নিয়ে এই বই। গভীর অন্ধকারে ছোট-ছোট জোনাকির আলোর মতো এই সব উপাখ্যান।

     60.00
  • অনির্বাণ মুখোপাধ্যায়
    খাচ্ছি কিন্তু গিলছি না : সুত-মিত বাঙালি সমাজে

    দৈনিক কাগজে সপ্তাহান্তিক প্রকাশের সময়েই সঙ্গত কারণে পাঠকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে অনির্বাণের এই সমস্ত লেখা, যার বিষয় সমাজ-সংস্কৃতির পপুলার সিনারিও, এবং তার ক্রিটিকাল ইভ্যালুয়েশন। প্রায় খাপখোলা তলোয়ারের মতো অনির্বাণের ভাষা, আর তার টিকিও বাঁধা নেই কোন দল-মতের কাছে, এ বিষয়ে লেখার যা অন্যতম শর্ত। এ বিষয়ে লেখার সে যে একেবারে যোগ্যতম লোক, তার প্রমাণ দেবে লেখাগুলোই। অতিরিক্ত বলার এই যে, পর্বে-পর্বে এই সমস্ত লেখা একত্র করার শুরুয়াতে প্রথম তিপ্পান্নটি লেখা নিয়ে এই সংকলন প্রসারিত হবে আরও কয়েকটি পর্বে।

    ISBN: 978-93-80542-36-2
    ১৫৬ পৃষ্ঠা/ ১ এমবি

     50.00
  • Out Of Stock

    সুজান সনটাগ
    অন ফটোগ্রাফি
    ভাষান্তর: মাহমুদুল হোসেন

    সুজান সনটাগ এই গ্রন্থে তার সমকালের ইমেজ-সংস্কৃতি, ইমেজ-রাজনীতি এবং ইমেজ-মনস্তত্ত্বকে বুঝতে নানা দিক থেকে এর ওপর আলো ফেলে দেখতে চেয়েছেন। বিশ শতকে, যখন দেখা বা দৃষ্টি বিষয়ক প্যারাডাইম পরিবর্তনের কাল; মানুষের দৃষ্টিগ্রাহ্যতা, অভিজ্ঞতা এবং বোধ ক্রমে এক পরিণতির দিকে অগ্রসর হচ্ছে এবং ক্রমাগত এই দৃষ্টিগ্রাহ্যতা দখল নিচ্ছে ব্যক্তি, সমাজ, বাস্তবতা, কামনা, বিবেক ও ভোগের, তখন ‘অন ফটোগ্রাফি’ চিন্তাশীল মানুষকে দারুণ ভাবে উজ্জীবিত করতে পারে। ‘অন ফটোগ্রাফি’-তে সনটাগ দেখিয়েছেন যে ফটোগ্রাফি নিজেই ইমেজের এমন এক প্রতিবেশ সৃষ্টি করে যে, পৃথিবীর খণ্ডাংশগুলি তাদের প্রাসঙ্গিকতা এবং ইতিহাস থেকে স্থানচ্যুত হয়ে এক পরাবাস্তব দৃষ্টিগ্রাহ্যতায় পরিণত হয়।

     390.00
  • অনির্বাণ মুখোপাধ্যায়
    খাচ্ছি কিন্তু গিলছি না : সুত-মিত বাঙালি সমাজে

    দৈনিক কাগজে সপ্তাহান্তিক প্রকাশের সময়েই সঙ্গত কারণে পাঠকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে অনির্বাণের এই সমস্ত লেখা, যার বিষয় সমাজ-সংস্কৃতির পপুলার সিনারিও, এবং তার ক্রিটিকাল ইভ্যালুয়েশন। প্রায় খাপখোলা তলোয়ারের মতো অনির্বাণের ভাষা, আর তার টিকিও বাঁধা নেই কোন দল-মতের কাছে, এ বিষয়ে লেখার যা অন্যতম শর্ত। এ বিষয়ে লেখার সে যে একেবারে যোগ্যতম লোক, তার প্রমাণ দেবে লেখাগুলোই। অতিরিক্ত বলার এই যে, পর্বে-পর্বে এই সমস্ত লেখা একত্র করার শুরুয়াতে প্রথম তিপ্পান্নটি লেখা নিয়ে এই সংকলন প্রসারিত হবে আরও কয়েকটি পর্বে।

     150.00
    Version : ebook - hardcopy
  • Out Of Stock

    জন লেনন
    গান ছাড়া জানি না কিছুই

    দুনিয়া-কাঁপানো গানের দল বিটল্‌স-এর অন্যতম সদস্য জন লেনন এখন প্রায় এক কিংবদন্তির চরিত্র। তাঁর গান, তাঁর জীবনযাপন, এমনকী তাঁর অকালমৃত্যু–  সবই তার অন্তর্গত। লেনন-এর দীর্ঘ তিনটি সাক্ষাৎকার, নির্বাচিত গানের কথা ও বিস্তারিত জীবনপঞ্জি নিয়ে এই বই।

     75.00
  • Out Of Stock

    নোয়াম চমস্কি
    গণমাধ্যমের চরিত্র

    রাষ্ট্রশাসনের অন্যতম হাতিয়ার গণমাধ্যম। সমকালীন রাজনীতিতে তার ভূমিকা, মিথ্যে প্রচার আর তথ্যগোপনের কূটকৌশলে ব্যাপ্ত সে এক ষড়যন্ত্রের ইতিবৃত্ত। এ নিয়ে লেখার যোগ্যতম যিনি, তাঁর কলমে ক্ষুরধার এই বই।

     60.00
  • Out Of Stock

    মাহমুদুল হোসেন
    চলচ্চিত্রের রূপ-অরূপ

    চলমান দৃশ্য-সংবেদ নিয়ে গদ্য। প্রতিষ্ঠান-বিরোধিতা, বিকল্প প্রকল্প, প্রযুক্তি-আলোচনা সিনেমা বিষয়ে। অথবা প্রান্তিকতা ও জাতীয়তা বিষয়ে প্রস্তাবনা চলচ্চিত্র বিষয়েই। তার সাধারণ ও বিশেষ অবভাস নিয়ে যেমন লেখেন মাহমুদুল, তেমনি নির্দিষ্ট সৃজন বিষয়ে সাহিত্য। সংগঠন ভাবনার বিস্তার প্রিয় চলচ্চিত্র সংসদ আন্দোলন নিয়ে। আসলে চলমান দৃশ্যমানতাই তো এখন নিয়ন্তা দিনযাপনের। গদ্যসংগ্রহটি এ সময়ের। তার প্রাসঙ্গিকতা সমকালীনতায়; তার পক্ষপাত অভিব্যক্তি রচনায়, চলচ্ছবিতে।

    নোকতা (বাংলাদেশ)-এর বই, ভারতে পরিবেশক মনফকিরা।

     385.00